প্রচ্ছদ >> ফিচার

রঙিন ওড়না

একই পোশাক, নানা রকম ওড়না-সহজেই নতুনত্ব আনতে পারেন পোশাকে। মডেল: শার্লিন, পোশাক: রঙ, সাজ: বিন্দিয়া এক্সক্লুসিভ, ছবি: কবির হোসেনওড়না...সে তো রঙিন হবেই। ফ্যাশনে যে রঙের জোয়ার। সেই জোয়ারে গা ভাসিয়ে তরুণীমন সেজেছে সাতরঙা ওড়নায়।
ফ্যাশন হাউস রঙ-এর অন্যতম পরিচালক বিপ্লব সাহা বলেন, ‘ফ্যাশনে এখন রঙিন ওড়নার কদর। ওড়নার বাহারি রঙে এক নান্দনিক সৌন্দর্যের দেখা মেলে। যেকোনো সাদামাটা সাজকে পূর্ণতা দিতে পারে একটি রঙিন ওড়না।’
Untitled-3প্রবর্তনার পরিচালক শাহিদ হোসেন বলেন, ‘একই ওড়নায় নানা রঙের ব্যবহার এখন বেশ জনপ্রিয়। কামিজের সঙ্গে মিলিয়ে নয়, বরং রঙিন ওড়নার সঙ্গে মিলিয়ে কামিজ পরার চলটা ফিরে এসেছে আবার। টাইডাই ও বাটিকের পাশাপাশি ভিন্ন আঙ্গিকের সুতি, খাদি ও সিল্কের শিবোরি ওড়নাগুলো ফ্যাশনে যোগ করেছে ভিন্ন মাত্রা।’
প্রাইডের পরিচালক সুম্বাল এ মোমেন বলেন, ‘নানান রঙের শেডের ওড়নাগুলো খুব সহজেই যেকোনো কামিজের সঙ্গে মানিয়ে যায়। কখনো কখনো একটি ওড়না দু-তিনটি পোশাকের সঙ্গেও মিলিয়ে পরা যায়। তাই এ সময় শেডের ওড়নার চাহিদা বেশি।’ রঙ যখন ছড়িয়েছে রঙিন ওড়না, সে রঙে সেজে উঠতে পারেন আপনিও। লাল, হলুদ, কমলা, সবুজ, নীল, আসমানি, গোলাপি, বেগুনিরা মিলেমিশে একাকার। সুতি, তাঁত, খাদি, শিফন, সিল্কের জমিনে চোখে পড়বে ব্লক, বাটিক ও জলছাপের নকশা। কোনোটি আবার সাদামাটা জমিনেই নজরকাড়া।একই পোশাক, নানা রকম ওড়না
চাইলে নিজেও তৈরি করে নিতে পারেন কয়েক রঙের মিশেলে ওড়না। সে ক্ষেত্রে কয়েক রঙা কাপড় সুন্দর একখানি লম্বা লেইস দিয়ে জোড়া লাগিয়ে নিতে পারেন। অথবা কেবলই জোড়া দিয়ে সেখানে রং-তুলিতে এঁকে দিতে পারেন লম্বাটে কোনো নকশা। কাপড়ের মাপটা আড়াই গজ হলেই চলবে। অথবা একরঙা কাপড় কিনে নিজেই কয়েক রঙে রাঙিয়ে নিতে পারেন ওড়না। কয়েক রঙেই যে ওড়না হতে হবে, তা নয়; একটি রংকেও ক্রমেই গাঢ় থেকে হালকায় রাঙিয়ে নিতে পারেন। ঢাকার গাউছিয়া, নিউমার্কেটের ব্লক, বাটিকের দোকান থেকে রং কিনতে পারেন। ওড়নার সঙ্গে পোশাক মেলাতে অত ভাবাভাবির কিছু নেই। ওড়নার রং থেকে যেকোনো একটি রং নিয়ে তৈরি করে নিতে পারেন পছন্দের কামিজ। কামিজ কেবল নয়; ফতুয়া, কুর্তা, টপের সঙ্গেও পরতে পারেন নানা রঙের ওড়না। নিত্যকার বন্ধুদের আড্ডা থেকে শুরু করে জমকালো দাওয়াত সব উপলক্ষকেই রঙিন করতে পারে নানা রঙের ওড়না। তবে ওড়নার রংটা যখন গাঢ় হবে, কামিজ-কুর্তার রংটা কোমল হলেই ভালো লাগবে। একরঙা কামিজের সঙ্গে জমকালো নকশার কয়েক রঙের ওড়না বেছে নিতে পারেন। ওড়নার একটি রঙে কিংবা ওড়নার বিপরীত রঙেও কামিজ, কুর্তা বেছে নিতে পারেন।
একই পোশাক, নানা রকম ওড়না-সহজেই নতুনত্ব আনতে পারেন পোশাকে। মডেল: শার্লিন, পোশাক: রঙ, সাজ: বিন্দিয়া এক্সক্লুসিভ, ছবি: কবির হোসেনকোথায় পাবেন, কেমন দাম
নানা রঙের ওড়না পেতে ফ্যাশন হাউসগুলোতে ঘুরে দেখতে পারেন। এ ছাড়া আজিজ সুপার মার্কেট, নিউমার্কেট, গাউছিয়া, চাঁদনী চকে পাবেন ওড়নার সুবিশাল সংগ্রহ। রঙ-এ খাদির শেডের ওড়না পাবেন ৩০০-৫০০ টাকায়, সুতির শেডের ওড়না ৩৩০-৬৫০ টাকায়, টাইডাই ওড়না ৩৩০-৪৫০ টাকায়, টাইডাইয়ের ওপর ব্লক ও স্ক্রিন প্রিন্টের ওড়না পাবেন ৪৫০-৬৫০ টাকায়। প্রবর্তনায় সুতির শিবোরি ওড়না পাবেন ৬৫০-৭৫০ টাকায়, সিল্কের শিবোরি ওড়না পাবেন ৭৫০-১৬০০ টাকায়। দেশালে শেডের সুতি ও খাদির ওড়না পাবেন ২২০-৩৫০ টাকায়। প্রাইডে সুতির রঙিন শেডের ওড়না পাবেন ২৭০-২৯০ টাকায়, শেডের ব্লকের ওড়না ৪০০-৫৫০ টাকায়। চাঁদনী চক, গাউছিয়ায় সুতি শেডের ওড়না পাবেন ১৫০-২৫০ টাকায়, শিফনের শেডের ওড়না পাবেন ২০০-২২০ টাকায়।
সূত্র: প্রথম আলো

2014-01-15-00-32-47 পৃথিবীর সৃষ্টিলগ্ন থেকে মানুষ ধাপে ধাপে উন্নতির পথে এগিয়ে যাচ্ছে। সভ্যতার পরিবর্তন হচ্ছে মানুষের উন্নতির মাধ্যমে। যে কাজ নিজের কল্যানের তা অন্যেরও কল্যানের। সেজন্য পুরাতন সমাজ ব্যবস্থার পরিবর্তন ঘটে নতুন সমাজ ব্যবস্থার সৃষ্টি হচ্ছে। মানুষের স্বভাবজাত ধর্ম-সে উন্নতির চরম শিখরে পৌঁছাতে চায়, ধর্ম-বর্ন-গোত্র নির্বিশেষে সকল মানুষের চাওয়া। শিশুকাল থেকেই...
     
 
এই বিভাগের সর্বশেষ আপডেট