প্রচ্ছদ >> সম্পাদকীয়

না ফেরার দেশে সুচিত্রা

KTS নিউজ ডেস্ক:  

  বাংলা চলচ্চিত্রের মহানায়িকা সুচিত্রা আর নেই। তিনি শুক্রবার সকাল সাড়ে আটটার দিকে কলকাতার একটি হাসপাতালে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা যান। তিনি দীর্ঘদিন যাবত কলকাতার বেল ভিউ হাসপাতালের চিকিৎসাধীন ছিলেন।গত ২৩ ডিসেম্বর ফুসফুসে সংক্রমণ নিয়ে বেসরকারি হাসপাতাল বেলভিউয়ে ভর্তি হন সুচিত্রা সেন। এ ছাড়া বহুদিন ধরেই তিনি অসুস্থ ছিলেন।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে ভারতের বিভন্ন সংবাদমাধ্যমে বলা হয়েছে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে শ্বাসকষ্ট শুরু হয় সুচিত্রার। রক্তে  অক্সিজেনের মাত্রাও কমে যায় আশঙ্কাজনক ভাবে। মহানায়িকাকে ফের নন ইনভেসিভ ভেন্টিলেশন দেওয়া হয়। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি। সকলকে কাঁদিয়ে সকালে না ফেরার দেশে চলে যান রমা।

এদিকে এই মহানায়িকার এই মহাবিদায়ে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আর পশ্চিম বাংলার মূখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি সরাসরি হাসপাতালে গিয়েই সময় দিচ্ছেন তার পরিবারকে।

১৯৩১ সালে বাংলাদেশের পাবনা জেলায় এক মধ্যবিত্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন রমা দাশগুপ্ত। বাবা করুণাময় দাশগুপ্ত স্থানীয় স্কুলের প্রধান শিক্ষক ছিলেন। ১৯৪৭ সালে বর্ধিষ্ণু শিল্পপতি পরিবারের সন্তান দিবানাথ সেনকে বিয়ের সূত্রে কলকাতায় আসেন পাবনার রমা। বিয়ের পরে ১৯৫২ সালে দশেষ কথায়দ রূপোলী পর্দায় নায়িকার ভূমিকায় প্রথম আত্মপ্রকাশ করেন তিনি। পাবনার রমার নাম বদলে হয় সুচিত্রা। আর তার পরেরটা শুধুই ইতিহাস।

বাংলার গণ্ডি ছাড়িয়ে হিন্দি ছবির জগতেও সুচিত্রা করেছিলেন বেশ কিছু অসাধারণ সিনেমা। ১৯৫৫ সালে দেবদাস সিনেমায় দিলীপ কুমারের বিপরীতে পার্বতীর ভূমিকায় প্রথম দেখা যায় তাকে।

১৯৭৮ সালে সুদীর্ঘ ২৫ বছর অভিনয়ের পর তিনি চলচ্চিত্র থেকে অবসরগ্রহণ করেন। এর পর তিনি লোকচক্ষু থেকে আত্মগোপন করেন এবং রামকৃষ্ণ মিশনের সেবায় ব্রতী হন। ২০০৫ সালে দাদাসাবেহ ফালকে পুরস্কারের জন্য সুচিত্রা সেন মনোনীত হন, কিন্তু ভারতের প্রেসিডেন্টের কাছ থেকে সশরীরে পুরস্কার নিতে দিল্লী যাওয়ায় আপত্তি জানানোর কারনে তাকে পুরস্কার দেওয়া হয় নি।

 

 

 

2019-05-11-08-17-47আলফা নিউজ ডেস্ক: যুক্তরাজ্য সফরের শেষ পর্যায়ে বৃহস্পতিবার লন্ডনের তাজ হোটেলে প্রবাসী আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীদের সঙ্গে এক সভায় তিনি একথা বলেন। শেখ হাসিনা বলেন, “আমরা বঙ্গবন্ধুর খুনি ও যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করেছি। খুনি ও অর্থপাচারকারীরা যেখানেই লুকিয়ে থাকুক, যত টাকাই খরচ করুক, তাদের কোনো ক্ষমা নেই এবং জাতি তাদের ক্ষমা করবে না। “আদালত...
     
 
এই বিভাগের সর্বশেষ আপডেট