প্রচ্ছদ >> সারাদেশ

ব্যবসায়ীকে অপহরনের পর জীবিত উদ্ধার : বিদেশী পিস্তল সহ গ্রেফতার ১

খুলনা থেকে আবু হামজা বাঁধন :

খুলনা ফুলতলা থানার ওসি মোঃ এমদাদ হোসেনের রুদ্ধ শাড়াসী অভিযানে গত ২২ জুলাই এক ব্যবসায়ীকে জীবিত উদ্ধার সহ বিদেশী তৈরি উন্নতমানের একটি পিস্তল ও ৬ রাউন্ড গুলি সহ এক দুর্ধর্ষ অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়।
পুলিশ জানায়, খুলনা জেলার ফুলতলা থানাধীন শিকিরহাট রোডস্থ জনৈক নূরু মাঝির একটি ঝুঁপড়ি ঘরের মধ্যে থেকে চোখ বাঁধা অবস্থায় মুদি ব্যবসায়ি চঞ্চল কুন্ডু (২৫) কে জীবিত উদ্ধার করা হয়। এ সময় অপহারনকারি দলের অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী মোশারফ মুন্সী (৩২) কে ইংলান্ডের তৈরি একটি আধুনিক পিস্তল ও ৬ রাউন্ড গুলি সহ আটক করা হয়। শাড়াসী এ অভিযান চলাকালে পুলিশের উপস্থিত টের পেয়ে অন্যান্য সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়।
তথ্যমতে, গত ২১জুলাই রাত আনুমানিক ১১ টা ৩০মিনিটে ফুলতলা সুপার জুট মিলের সামনে মুদি ব্যবসায়ি চঞ্চল কুন্ডুকে ৮/১০ জনের একটি সংঘবদ্ধ অপহরনকারি দল তাকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে চোখ বেধেঁ তাদের গোপন আস্তানায় ধরে নিয়ে যায় । এ সময় চঞ্চল কুন্ডুর কাছে অপহরনকারি চক্র ৫লাখ টাকা মুক্তিপন দাবি করে। পরদিন পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পেরে পুলিশি এ্যাকশানে যায়। তখন শিকিড় হাট জনৈক নূরু মাঝির একটি ঝুঁপড়ি ঘর থেকে চঞ্চল কুন্ডু কে উদ্ধার করে। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট থানায় একটি অস্ত্র আইন এবং মুক্তি পন দাবি আদায়ের অপরাধে মামলা হয়েছে বলে জানাযায় ।
অনুসন্ধানে জানা গেছে, মোশারফ মুন্সী একটি নিষিদ্ধ ঘোষিত দলের সদস্য। সে ফুলতলা থানার তাজপুর পয়গ্রাম এলাকার বাসিন্দা। তার পিতার নাম মোঃ জাফর মুন্সী। উল্লেখ থাকে যে, ফুলতলা থানার আলকা গ্রামের মৃতঃ গৌর হরি কুন্ডুর পূত্র চঞ্চল কুন্ডু কে পুলিশ উদ্ধার করায় তার পরিবার ও এলাকাবাসি পুলিশকে ধন্যবাদ জানিয়েছে। অনেকে মন্তব্য করে বলেছেন, সময়মত পুলিশ অভিযান না চালালে হয়তো চঞ্চল ক্ন্ডুুকে জীবিত দেখতে পারতাম না ।
প্রসঙ্গত, ইতমধ্যে ফুলতলা থানা এলাকায় কয়েকটি অপরাধ প্রবণতা ঘটিয়ে সন্ত্রাসীরা মানুষ খুন সহ বিভিন্ন নাশকতা মূলক কর্মকান্ড ঘটিয়ে শান্তি শৃংখলা ভঙ্গ করেছে। তবে বর্তমান থানার ওসি মোঃ এমদাদ হোসেন অপরাধীদের বিরুদ্ধে কঠোর হস্তে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করে যথাযথ ভূমিকা রেখে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন। পরবর্তীতে অনুসন্ধানের মাধ্যমে ফুলতলা থানা এলাকার আইন শৃঙ্খলার উপর ধারাবাহিকভাবে বিশেষ প্রতিবেদন প্রকাশ করা হবে।

এই বিভাগের সর্বশেষ আপডেট