প্রচ্ছদ >> সারাদেশ

কাদের মোল্লার মামলায় আপিল শুনানি শেষ : যে কোন দিন রায়

ঢাকা রিপোর্ট প্রতিবেদক:

জামায়াত নেতা আব্দুল কাদের মোল্লার মামলায় ট্রাইব্যুনালে দেয়া সাজার বিরুদ্ধে আনা আপিলের ওপর রায় যে কোন দিন দেয়া হবে।
প্রধান বিচারপতি মো. মোজাম্মেল হোসেনের নেতৃত্বে সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগের ৫ বিচারপতির বেঞ্চে গতকাল মঙ্গলবার আপিলের ওপর শুনানি শেষে মামলায় যে কোন দিন রায় দেয়া হবে বলে আদেশ দেয়া হয়।
বেঞ্চের অপর বিচারপতিরা হচ্ছেন- বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার (এসকে) সিনহা, বিচারপতি আব্দুল ওয়াহ্হাব মিঞা, বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন ও বিচারপতি এএইচএম শামসুদ্দিন চৌধুরী।
মুক্তিযুদ্ধকালীন মানবতাবিরোধী অপরাধের কোন মামলায় এ প্রথম ট্রাইব্যুনালে দেয়া রায়ের বিরুদ্ধে আনা আপিলের ওপর শুনানি শেষে রায়ের জন্য প্রস্তুত হলো।
কাদের মোল্লার সর্বোচ্চ শাস্তির প্রার্থনা পেশ করে আজ শুনানি শেষ করেন এটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। এটর্নি জেনারেল বলেন, অপরাধীর উপযুক্ত শাস্তি না হলে ন্যায়বিচার নিশ্চিত হয় না। কাদের মোল্লার বিরুদ্ধে ৫টি অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ার পরও তাকে সর্বোচ্চ শাস্তি দেয়া হয়নি। এর কোন কারণও ট্রাইব্যুনাল ব্যাখ্যা করেনি। এসব বিবেচনায় রাষ্ট্রপরে আনা আপিল গৃহীত হওয়া উচিত।
কাদের মোল্লার খালাসের আর্জি পেশ করে তার আইনজীবী ব্যারিস্টার আব্দুর রাজ্জাক গত সোমবার শুনানি শেষ করেন।
আপিলে রাষ্ট্র ও আসামিপকে সমান সুযোগ দিয়ে আনা আন্তর্জাতিক অপরাধ (ট্রাইব্যুনালস) আইন-১৯৭৩ এর সংশোধনী যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত কাদের মোল্লার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে কি-না এবং প্রথাগত আন্তর্জাতিক আইন এর আওতায় এ মামলা পড়বে কি-না প্রশ্নে সাতজন বিশিষ্ট আইনজীবীর অ্যামিকাস কিউরি হিসেবে মতামত নেয় আদালত। এরা হলেন বিশিষ্ট ও সিনিয়র আইনজীবী টি এইচ খান, ব্যারিস্টার রফিকুল হক, ব্যারিস্টার এম আমীর-উল ইসলাম, সাবেক এটর্নি জেনারেল মাহমুদুল ইসলাম ও হাসান আরিফ, ব্যারিস্টার রোকন উদ্দিন মাহমুদ এবং আজমালুল হোসেন কিউসি।
গত ৫ ফেব্রুয়ারি মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে কাদের মোল্লাকে দোষী সাব্যস্ত করে দেয়া রায়ে সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ডাদেশ না দেয়ায় এবং একটি অভিযোগ থেকে খালাস দেয়ায় সাজা বাড়ানোর লক্ষ্যে এ রায়ের বিরুদ্ধে গত ৩ মার্চ আপিল করেন প্রসিকিউশন (রাষ্ট্রপক্ষ)। এ দিকে ৪ মার্চ অভিযোগ থেকে খালাসের আবেদন জানিয়ে আপিল করে কাদের মোল্লা।
মুক্তিযুদ্ধকালীন মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় কাদের মোল্লাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়ে কোন আটক আসামির বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে ৫ ফেব্র“য়ারি প্রথম রায় ঘোষণা করে। রায়ে বলা হয়, ‘আসামি আব্দুল কাদের মোল্লার বিরুদ্ধে প্রসিকিউশন আনীত ৬টি অভিযোগের মধ্যে ৫টি অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে। এরমধ্যে ৩টি অভিযোগে তাকে ১৫ বছর করে কারাদণ্ড এবং অপর দুইটি অভিযোগে তাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দেয়া হয়।
আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২ এর চেয়ারম্যান বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বে বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারক শাহিনুর ইসলামের সমন¦য়ে গঠিত তিন সদস্যের ট্রাইব্যুনাল এ রায় ঘোষণা করে।
গত ১৭ ফেব্র“য়ারি আন্তর্জাতিক অপরাধ (ট্রাইব্যুনালস) (সংশোধন) বিল, ২০১৩ জাতীয় সংসদে পাস হয়। সংশোধিত আইনে রায়ের বিরুদ্ধে রাষ্ট্র ও আসামিপরে আপিলের সমান সুযোগ রাখা হয়েছে। আইনে রায়ের ৩০ দিনের মধ্যে সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগে আপিল করার বিধান রাখা হয়েছে।

এই বিভাগের সর্বশেষ আপডেট