প্রচ্ছদ >> সারাদেশ

এরশাদ রাজনীতির বন্ধ দরজা খুলতে চান

ঢাকা রিপোর্ট প্রতিবেদক:
জাতীয় পার্র্র্টি চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদ বলেছেন, ইসলাম ধর্মে আছে রমজান মাসে বেহেস্তের দরজাও খুলে যায়। কিন্তু দেশের রাজনীতির দরজা কবে খুলবে তা কেউ জানে না। একক নির্বাচনে অংশ নিতে ঈদের পর নতুন উদ্যমে কাজ শুরু করার ঘোষণাও দেন তিনি। রোজার মধ্যে টানা হরতালের সমালোচনা করেন তিনি।
রাজধানীর গুলশানে একটি রেস্তোরাঁয় জাতীয় পার্র্র্টি ঢাকা মহানগর উত্তর আয়োজিত এক ইফতার মাহফিল ও আলোচনা সভায় এরশাদ এসব কথা বলেন।
তিনি বলেন, জাতীয় পার্র্র্টি একটি দল যার নিজস্ব সত্তা আছে, বৈশিষ্ট আছে। কোন দলে যাওয়ার জন্য আমরা প্রস্তুত নই। মতায় যাওয়ার জন্য রাজনীতি করি, মতার সিঁড়ি হওয়ার জন্য নয়। আমরা আমাদের পথে চলব। রমজানের পর মাঠে নামব।”
গণআন্দোলনে মতাচ্যুত এই সামরিক শাসক বলেন, “চার দিন ধরে হরতাল চলল, ব্যবসা বন্ধ, বিনিয়োগ বন্ধ, অশান্ত পরিবেশ চারদিকে। এর মধ্যে আমরা রমজান পালন করছি। ইসলাম ধর্মে বলা হয়েছে, রমজান মাসে বেহেস্তের দরজা খুলে যায়, আমাদের রাজনীতির দরজা বন্ধ, কবে খুলবে জানি না। রাজনীতি একটা আবর্তে ঘুরপাক খাচ্ছে। দেশের মানুষ দুই দলের রাজনীতি দেখতে চায় না বলেও মন্তব্য করেন তিনি।
কিন্তু তৃতীয় দল হিসেবে আমরা এখনো নিজেদের গ্রহণযোগ্য করতে পারিনি। ইনশাল্লাহ রমজানের পর মাঠে নামব। ঈদের পর হাটে-মাঠে গ্রামে-গঞ্জে ছড়িয়ে পড়ব, আগামী নির্বাচনে লড়ব। বন্ধ দরজা খুলব।
দলের নেতাকর্মীদের দলের প্রতি আরো সক্রিয় হওয়ার তাগিদ দেন জাতীয় পার্র্র্টির চেয়ারম্যান। একটি পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদনকে ধরে দলের নেতা-কর্মীদের তিরস্কার করেন তিনি।
ইত্তেফাক পত্রিকায় খবর এসেছে, আগামী নির্বাচনে জোট ছাড়া এবং নতুন জোটে অন্তর্ভুক্তিকে কেন্দ্র করে জাতীয় পার্র্র্টি বিভক্ত হয়ে যাচ্ছে। এটা খুবই লজ্জাজনক। এসব কথা কেন আসবে? আমরা একটি স্বতন্ত্র রাজনৈতিক দল। এমন কোন কাজ করবেন না যাতে জাতীয় পার্র্র্টির মর্যাদা  ক্ষুণœ হয়, আমাদের অসম্মান হয়।
অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্র্র্টির মহাসচিব এবিএম রহুল আমিন হাওলাদার, প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী জাফর আহমদ, জিয়াউদ্দিন আহমেদ, এস এম ফয়সল চিশতি প্রমুখ।

এই বিভাগের সর্বশেষ আপডেট